সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

Opah-fish.jpg

মুনফিস প্রথম শরীর উষ্ণ করতে সক্ষম মাছ আবিষ্কার!

ওপাহ হচ্ছে প্রথম মাছ যার ফুলকার চারপাশে রেটি মিরাবিল থাকে। ফুলকার তাপ বিনিময়ের এই মিরাবিল ১ সে.মি. পুরু চর্বির আস্তরণ দিয়ে ঢাকা থাকে যা তাপ নিরোধক হিসেবে কাজ করে।

স্তন্যপায়ী প্রাণি ও পাখির মত শরীর উষ্ণ করতে সক্ষম এমন একটি মাছ সম্প্রতি বিজ্ঞানীরা আবিষ্কার করেছেন। মাছটির নাম হচ্ছে ওপাহ (Opah) অথবা মুনফিস। এটি গভীর সমুদ্রের শীতল পানিতে বাস করে। তবে এটি বৃহৎ বক্ষপেশীর (Pectoral muscle) দ্বারা তাপ উৎপন্ন করতে পারে। উৎপন্ন তাপকে শরীরের চর্বি এবং ফুলকায় থাকা বিশেষ ধরনের রক্তনালীতে সঞ্চিত রাখে।

সাধারণত পানি প্রাণিদেহের তাপমাত্রা গ্রহণ করে থাকে। তাই দেখা যায় মাছের তাপমাত্রা প্রায় সাঁতার কাটার স্থানের পানির তাপমাত্রার সমান হয়। তাই খুব ঠান্ডা পানিতে শরীরবৃত্তীয় কর্মকাণ্ড বিশেষত হৃদপিণ্ড ও রক্তনালীর কাজকর্ম কমে যায়।

ওপাহ মাছটির বৈজ্ঞানিক নাম হচ্ছে Lampris guttatus খাটো ও গোলগাল এ মাছটি প্রায় ১ মিটার লম্বা হয়। মাছটি তার বক্ষদেশের পাখনা নাড়িয়ে সাঁতার কাটে। বিশ্বের প্রায় সব মহাসাগরে এরা বিচরণ করলেও এদের জীবনতত্ব সম্পর্কে খুব কমই জানা যায়। এরা স্কুইড এবং মাছ শিকার করে থাকে। সাধারণত সমুদ্রের ৫০-২০০ মিটার নিচে শিকার করে। সেখানে পানির তাপমাত্রা হয় ১০ ডিগ্রী সেলসিয়াস।

২০১২ সালে ওয়্যিন স্নোডগ্রাস (Fisheries biologist with the National Oceanic and Atmospheric Administration in San Diego, California) জরিপ কার্যের জন্য কিছু ওপাহ মাছ ধরেন। তিনি মাছের ফুলকা তার সহকর্মী নিকোলাস ওয়েগনারকে প্রদান করেন। ওয়েগনার ছিলেন একজন ফিজিওলজিস্ট। তিনি ফুলকাগুলো কয়েক মাস সংরক্ষণ করার পর পর্যবেক্ষণের জন্য বের করেন। এসময় নতুন কিছু দেখতে পান।

সাধারণত মাছের কিছু বড় রক্তনালী থাকে যা ফুলকা থেকে রক্তসংবহন করে থাকে। তাছাড়া ফুলকার ক্ষুদ্রনালী পানি থেকে অক্সিজেন নিতে সহায়তা করে। কিন্তু ওপাহ’র ক্ষেত্রে বিস্তৃত ক্ষুদ্রনালীর জাল দেখা যায়। যেখানে ধমণী ও শিরা শক্তভাবে বিন্যাস্ত থাকে। এই বিন্যাসকে রেটি মিরাবিল (Rete mirabile বা wonderful net) বলে। সারারণত রেটি মিরাবিল কিছু জলজ পাখি ব্যবহার করে শরীরের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। কিছু তিমি এই উপায়ে জিহ্বার তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। টুনা, বিলফিস এবং কিছু হাঙ্গর রেটি মিরাবিলের মাধ্যমে পেশী উষ্ণ রাখে।

তবে ওপাহ হচ্ছে প্রথম মাছ যার ফুলকার চারপাশে রেটি মিরাবিল থাকে। ফুলকার তাপ বিনিময়ের এই মিরাবিল ১ সে.মি. পুরু চর্বির আস্তরণ দিয়ে ঢাকা থাকে। যা তাপ নিরোধক হিসেবে কাজ করে।

ওয়েগনার, স্নোডগ্রাস এবং তার সহকর্মী সমুদ্রের ওপাহ মাছের তাপমাত্রা পরিমাপ করেন। তারা দেখেন এই মাছ যে পানি থেকে সংগ্রহ করেছেন তার থেকে গড়ে ৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস বেশি তাপমাত্রা শরীরে ধরে রাখছে। তারা সাঁতার কাটা মাছের বক্ষপেশীর তাপমাত্রাও পরিমাপ করে দেখেন। তারা দেখেন পানির তাপমাত্রা ৪ ডিগ্রী সেলসিয়াস হলেও বক্ষপেশীর তাপমাত্রা ১৩-১৪ ডিগ্রী সেলসিয়াস।

শরীরের উচ্চ তাপমাত্রা সাঁতার কাটা, ঠান্ডায় শিকার ধরাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহায়তা করে। ওয়েগনার এবং তার সহকর্মী জানান এখনো এই রহস্যময় সৃষ্টি নিয়ে অনেক গবেষণার প্রয়োজন আছে।

-
লেখক: শিক্ষার্থী, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু)।
সূত্র: সাইন্স ম্যাগাজিন

এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

Lampridae, life, water, Sea, Heat, Moonfish