সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

taaaaa.jpg

প্রানের ক্যাম্পাস হাবিপ্রবি বিদেশি শিক্ষার্থীদের আগ্রহ বাড়ছে হাবিপ্রবিতে

বর্তমানে যেখানে বাংলাদেশের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে বিদেশী শিক্ষার্থীরা আগ্রহ হারাচ্ছে সেখানে হাবিপ্রবিতে দিন দিন বিদেশী শিক্ষার্থীদের আগ্রহ বাড়ছে।

কৃষিসহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির বিভিন্ন শাখায় উচ্চ শিক্ষা ও গবেষণা উন্নয়ন এর জন্য বাংলাদেশের উত্তর জনপদ দিনাজপুরে প্রাকৃতিক মনোরম পরিবেশে গড়ে উঠেছে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। এই বিশ্ববিদ্যালয়টিকে উত্তর বঙ্গের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ বলা হয়ে থাকে।

বিশ্ববিদ্যালয়টি ১৯৯৯ সালে একমাত্র কৃষি অনুষদ নিয়ে যাত্রা শুরু করলেও বর্তমানে এর ৮ টি অনুষদে ২২ টি বিষয়ে ডিগ্রি দেওয়া হয়। বর্তমানে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে দেশি বিদেশি মিলে প্রায় ৬ হাজার শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত  রয়েছে।

গত বছর পর্যন্ত এখানে শুধু নেপাল থেকে ছাত্র ছাত্রীরা পরতে আসতো কিন্ত বর্তমানে নেপালসহ আরও প্রায় ৪ টি দেশ থেকে প্রায় ৫০ জন শিক্ষার্থী এ বছর এই বিশ্ববিদ্যালয় এ ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে নেপাল, দিবুতি, সোমালিয়া, নাইজেরিয়া, ইথপিয়া, ভুটান অন্যতম। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে তারা ইঞ্জনিয়ারিং বিষয়গুলোকে বেশি পছন্দ করেছে। এছাড়াও কিছু ডি ভি এম, কিছু  বি বি এ তে ও কিছু কৃষিতে ভর্তি হয়েছে।

বর্তমানে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন বিষয়ে প্রায় ১২০ বিদেশী শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত আছে। বর্তমানে যেখানে বাংলাদেশের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে বিদেশী শিক্ষার্থীরা আগ্রহ হারাচ্ছে সেখানে হাবিপ্রবিতে দিন দিন বিদেশী শিক্ষার্থীদের আগ্রহ বাড়ছে।

বিদেশি শিক্ষার্থীকে হাবিপ্রবির প্রতি আকৃষ্ট করানো পেছনে রয়েছে বর্তমান শিক্ষানুরাগী উপাচার্য প্রফেসর মো. রুহুল আমিনের অক্লান্ত পরিশ্রম আর চেষ্টার ফসল। শুধু তাই নয়, প্রফেসর রুহুল আমিন সেসব আগত বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য ইন্টারন্যাশনাল হল নির্মাণেরও পরিকল্পনা করে চলেছেন।

এ ছাড়া তিনি বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স সেকশন চালু করেছেন, যা পূর্বে আদৌ এ বিশ্ববিদ্যালয়ে ছিল না। কয়েকজন বিদেশি শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এ বিশ্ববিদ্যালয়টি তাদের অনেক পছন্দ হয়েছে এবং এখানকার শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও ছাত্রছাত্রীরা অনেক আন্তরিক। 

ডিভিএম অনুষদের কিছু শিক্ষার্থী বলেন, ক্যাম্পাসের আনন্দময় জীবনের সবচেয়ে বড় এবং সব সময়ের সঙ্গী হলো বন্ধুরা, যদিও নিজ দেশের স্কুল-কলেজের পুরনো বন্ধুদের ছেড়ে প্রথম কয়েকদিন ভিন্ন দেশে ভিন্ন পরিবেশে এসে আমার মন কেমন কেমন করছে। আমরা হাজার হাজার মাইল দূর থেকে একটি নতুন পরিবারে এসেছি, তাতে কী? যদিও আমাদের দেশের তুলনায় এখানে থাকায় কষ্ট, কিন্তু এখানে যে মজা হয় তার তুলনায় সে কষ্ট তুচ্ছ।

বলা যায়, বিদেশি নবীন শিক্ষার্থীদের আগমনে এখন প্রাণোচ্ছল হাবিপ্রবি ক্যাম্পাস।


এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

Students, Dinajpur, HUST, Foreign, Campus, education, Local, Lively